রবিবার, ২০ Jun ২০২১, ০৯:১৮ পূর্বাহ্ন

প্রতিনিধি আবশ্যক :
বহুল প্রচারিত অনলাইন পত্রিকা জয় বাংলা নিউজ ডট কম ( www.joibanglanews.com)এর জন্য জরুরী ভিত্তিতে দেশের বিভিন্ন জেলা, উপজেলা/থানা এবং বিশ্ববিদ্যালয় ভিত্তিক (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি আবশ্যক। আগ্রহী প্রার্থীদের পাসপোর্ট সাইজের ১ কপি ছবি, জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি, অভিজ্ঞতা ( যদি থাকে) উল্লেখ পূর্বক জীবন বৃত্তান্ত এবং মোবাইল নাম্বার সহ ইমেইলে ( joibanglanews@gmail.com ) আবেদন করতে হবে।
যশোরে জনি হত্যায় ২৫জনের বিরুদ্ধে মামলা

যশোরে জনি হত্যায় ২৫জনের বিরুদ্ধে মামলা

বিজ্ঞাপন

 

স্টাফ রিপোর্টার: যশোর সদর উপজেলার নরেন্দ্রপুরে মাটি কেনাবেচা নিয়ে দ্বন্দে জনি হোসেন (২৬) নামে এক যুবক নিহতের ঘটনায় ২৫ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত ৪/৫ জনের নামে কোতয়ালি থানায় মামলা হয়েছে। নিহতের পিতা সিরাজুল ইসলাম ওই মামলা করেন। শুধুমাত্র হয়রানি করার জন্য এলাকার সাধারণ মানুষের নামে মিথ্যা মামলা করা হয়েছে বলে স্থানীয়রা অভিযোগ করেছেন।

মামলার আসামিরা হলো, সদর উপজেলার চাউলিয়া গ্রামের মৃত মনোয়ার ওরফে মনির ছেলে শাহিন আলম (৩০), হাশেম মোয়াজ্জিনের ছেলে মর্তুজা (৩৫), একই গ্রামের বাসির (২৮), আবুল খায়ের বিশ্বাসের নাতি তৌফিক (২৮), হাশেম মোয়াজ্জিনের নাতি রেজোয়ান (২৬), নরেন্দ্রপুর পোষ্ট অফিস পাড়ার নওশের আলী গাজীর ছেলে সবুজ হাসান (৩০), নরেন্দ্রপুর মোল্লাপাড়ার দবিরের ছেলে সুমন (২২), জালালের ছেলে সাগর (১৯), ঘোড়াগাছা সাহাপাড়া কলেজের পেছনের সঞ্জয় পালের ছেলে সুজন কুমার পাল (২৫), কচুয়া গ্রামের নয়ন (২৫), চাউলিয়া গ্রামের ছাগল ব্যবসায়ী বাবুর ছেলে ইমামুল (২৬), মুন্না (১৮), অনিক (১৯), ঘোড়াগাছা কলেজের পেছনের গৌর সাহার ছেলে মিলন (২৪), চাউলিয়া গ্রামের শফি গাজীর ছেলে মুন্না (১৯), রুপদিয়া বাজার বটতলা এলাকার আলী আকবরের ছেলে আরমান (২২), মুনছেফপুর খান পাড়ার নিশান (২২), গোপালপুর দফাদার পাড়ার ওলিয়ার রহমানের ছেলে মনিরুল ইসলাম মনির (৩৫), কচুয়া গ্রামের আরিফ (২২), ঘোড়াগাছা সাহাপাড়া কলেজের পেছনের সাধন দাসের ছেলে প্রান্ত (২০), রুপদিয়া বাজারের তুহিন (২২) (বড়ভাই চাল ব্যবসায়ী শাহিন), নরেন্দ্রপুর মোড়ল পাড়ার গোলাম মোস্তফার ছেলে রাসেল (২৯), গোপালপুর দফাদারপাড়ার ওয়াজেদ গাজীর ছেলে আল আমিন হোসাইন (২৫) এবং ঘোড়াগাছা কলেজের পেছনের দুলালের ছেলে সোহাগ (২৫)।

মণিরামপুর উপজেলার ঢাকুরিয়া ইউনিয়নের তারুয়া পশ্চিমপাড়ার সিরাজুল ইসলাম এজাহারে উল্লেখ করেছেন, তার ছেলে জনি (২৬) সদর উপজেলার কুচয়া গ্রামে মামা আবু সাঈদের বাড়িতে থেকে ইটের ভাটায় মাটি আনা নেয়ার কাজ করতো। মঙ্গলবার ডিসেম্বর বিকেলে আসামি সুমন ও সাগরের সাথে একটি মোটরসাইকেলে করে তার বাড়িতে যায়। কিছু সময় থেকে গরম কাপড় নিয়ে ফের সুমন ও সাগরের সাথে চলে যায়। রাত সাড়ে ৯ টার দিকে জনি নরেন্দ্রপুর গ্রামের হারুন অর রশিদের চায়ের দোকানে বসে চা পান করছিল। সে সময় আসামি ৯/১০টি মোটরসাইকেল ও ট্রেগার গাড়িতে এসে জনির ওপর আক্রমন করে। তার বুকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করে আসামিরা চলে যায়। পরে পুলিশ সংবাদ পেয়ে সেখানে গিয়ে জনির লাশ উদ্ধার করে যশোর জেনারেল হাসপাতালে পাঠায়।

জানাগেছে এই মামলায় পুলিশ রাসেল, সবুজ ও আল আমিনকে আটক করেছে। কিন্তু তাদের আটকের কথা অস্বীকার করেছে পুলিশ। তাবে আটককৃতদের স্বজনরা জানিয়েছেন, সাদা পোশাকের পুলিশ তাদের নিয়ে গেছে।

স্থানীয়রা জানান, এই মামলার বেশির ভাগ আসামি নিরীহ। গন্ডোগালে সংবাদ শুনে অনেকে সেখানে গিয়েছিলেন। আবার ওই এলাকার বহু মানুষ ভাটার কাজের সাথে যুক্ত। কেউ ভাটা শ্রমিক, কেউ মাটি ও জ্বালানী সরবারহ করে। কেউ মাটি আনা নেয়ার কাজ করে থাকে। ফলে দুই গ্রæপের মধ্যে গন্ডোগোলের সংবাদ শুনে অনেকে সেখানে যান। সেখানে গিয়ে মামলার আসামি হয়েছেন। অথচ হত্যা সম্পর্কে কেউ কিছু জানেনা। তবে এই হত্যাকান্ডের মুল হোতো শাহিন। সে বেশ কয়েকজনকে ডেকে নিয়ে যায়।

এলাকার একাধিক সূত্র জানিয়েছে, এই মামলার বেশির ভাগ আসামিকে ফাঁসানো হয়েছে। ভাটার মাটি সংক্রান্ত কাজের সাথে যারা যুক্ত তাদের আসামি করা হয়েছে। ঘটনার সময় ছিল মাত্র চার জন। পরে অবশ্য গন্ডোগোলের সংবাদ শুনে সেখানে ট্রেগার বা মোটরসাইকেল নিয়ে লোকজন গিয়েছিল। মামলাটির সুষ্ঠ তদন্ত করলে অনেক নিরাপরাধ মামলা থেকে রেহাই পাবে।

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved  2019 Joibanglanews.com এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা নিষেধ।
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
Translate »