মঙ্গলবার, ১৮ মে ২০২১, ০৫:০৮ পূর্বাহ্ন

আছড়ে পড়েছে ভয়াবহ ‘কামুরি’, নিহত ১

আছড়ে পড়েছে ভয়াবহ ‘কামুরি’, নিহত ১

আছড়ে পড়েছে ভয়াবহ ‘কামুরি’, নিহত ১

জয় ডেক্স : ফিলিপাইনে প্রবল গতিতে আছড়ে পড়েছে ভয়াবহ ঘূর্ণিঝড় কামুরি। ওই ঝড়ের তাণ্ডবে কমপক্ষে একজন নিহত হয়েছেন বলে খবর পাওয়া গেছে। ঝড়ের প্রভাবে রাজধানী ম্যানিলাসহ বিভিন্ন স্থানে প্রবল বৃষ্টিপাত হচ্ছে। ফলে দেশটিতে বন্যা ও ভূমিধস হতে পারে বলে সতর্ক করে দিয়েছেন দেশটির সরকারি কর্মকর্তারা।

মঙ্গলবার ঘণ্টায় একটানা সর্বোচ্চ ১৫৫ কিলোমিটার বেগে দেশটির সোরসোগোন প্রদেশে আছড়ে পড়ে ঘূর্ণিঝড় কামুরি। এরপর কিছুটা দুর্বল হয়ে ফিলিপাইন দ্বীপপুঞ্জের কেন্দ্রীয় অংশের ওপর দিয়ে সামনে এগিয়ে যাচ্ছে। ঘূর্ণিঝড়ের আঘাতে ৩৩ বছর বয়সী এক ব্যক্তি পাণ হারিয়েছেন। মাথার ওপরের ছাউনি শক্ত করে বাঁধার সময় ওই ব্যক্তি বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মারা যান। ভেঙে পড়েছে বহু গাছপালা ও স্থাপণা।

টাইফুনের প্রভাবে ফিলিপাইনের রাজধানী ম্যানিলাসহ দেশের বিভিন্ন অংশে প্রবল বর্ষণ হচ্ছে। ফলে রাজধানীর স্কুল-কলেজ ও সরকারি দপ্তরগুলোও বন্ধ রাখা হয়েছে। পাশপাশি বন্ধ রয়েছে বিমান চলাচলও। ঘূর্ণিঝড় কামুরির কারণে ম্যানিলা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের কার্যক্রম মঙ্গলবার সকাল ১১টা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। এই বিমানবন্দরে সবমিলিয়ে প্রায় ৫শ ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে। ফলে বিমানবন্দরের চারটি টার্মিনালে অপেক্ষায় রয়েছে কমপক্ষে ১ লাখ যাত্রী। এছাড়া দেশটিতে শনিবার থেকে শুরু হওয়া সাউথইস্ট এশিয়ান গেমসের কয়েকটি ইভেন্ট বাতিল করা হয়েছে অথবা পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে।

এই ঘূর্ণিঝড় ফিলিপাইনে টিসোয় নামে পরিচিতি। এটি দেশটিতে আঘাত হানার আগেই স্থানীয় সরকারগুলো উপকূলীয় ও পার্বত্য এলাকাগুলোর দুই লাখ ২৫ হাজার বাসিন্দাকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেয়। এসব এলাকায় জলোচ্ছ্বাস, বন্যা ও ভূমিধসের মতো ঘটনা ঘটতে পারে বলে সরকারি কর্মকর্তারা সতর্ক করে দিয়েছেন।

চলতি বছর ফিলিপাইনে আঘাত হানা ২০তম ঘূর্নিঝড় হলো কামুরি। এর আঘাতে লুজনের বেশ কিছু বাড়ি ও স্থাপনা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে এবং শহরাঞ্চলে গাছাপালা ও বিজ্ঞাপনের বোর্ড উল্টে পড়েছে।
আছড়ে পড়েছে ভয়াবহ ‘কামুরি’, নিহত ১

ফিলিপাইনে প্রবল গতিতে আছড়ে পড়েছে ভয়াবহ ঘূর্ণিঝড় কামুরি। ওই ঝড়ের তাণ্ডবে কমপক্ষে একজন নিহত হয়েছেন বলে খবর পাওয়া গেছে। ঝড়ের প্রভাবে রাজধানী ম্যানিলাসহ বিভিন্ন স্থানে প্রবল বৃষ্টিপাত হচ্ছে। ফলে দেশটিতে বন্যা ও ভূমিধস হতে পারে বলে সতর্ক করে দিয়েছেন দেশটির সরকারি কর্মকর্তারা।

মঙ্গলবার ঘণ্টায় একটানা সর্বোচ্চ ১৫৫ কিলোমিটার বেগে দেশটির সোরসোগোন প্রদেশে আছড়ে পড়ে ঘূর্ণিঝড় কামুরি। এরপর কিছুটা দুর্বল হয়ে ফিলিপাইন দ্বীপপুঞ্জের কেন্দ্রীয় অংশের ওপর দিয়ে সামনে এগিয়ে যাচ্ছে। ঘূর্ণিঝড়ের আঘাতে ৩৩ বছর বয়সী এক ব্যক্তি পাণ হারিয়েছেন। মাথার ওপরের ছাউনি শক্ত করে বাঁধার সময় ওই ব্যক্তি বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মারা যান। ভেঙে পড়েছে বহু গাছপালা ও স্থাপণা।

টাইফুনের প্রভাবে ফিলিপাইনের রাজধানী ম্যানিলাসহ দেশের বিভিন্ন অংশে প্রবল বর্ষণ হচ্ছে। ফলে রাজধানীর স্কুল-কলেজ ও সরকারি দপ্তরগুলোও বন্ধ রাখা হয়েছে। পাশপাশি বন্ধ রয়েছে বিমান চলাচলও। ঘূর্ণিঝড় কামুরির কারণে ম্যানিলা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের কার্যক্রম মঙ্গলবার সকাল ১১টা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। এই বিমানবন্দরে সবমিলিয়ে প্রায় ৫শ ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে। ফলে বিমানবন্দরের চারটি টার্মিনালে অপেক্ষায় রয়েছে কমপক্ষে ১ লাখ যাত্রী। এছাড়া দেশটিতে শনিবার থেকে শুরু হওয়া সাউথইস্ট এশিয়ান গেমসের কয়েকটি ইভেন্ট বাতিল করা হয়েছে অথবা পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে।

এই ঘূর্ণিঝড় ফিলিপাইনে টিসোয় নামে পরিচিতি। এটি দেশটিতে আঘাত হানার আগেই স্থানীয় সরকারগুলো উপকূলীয় ও পার্বত্য এলাকাগুলোর দুই লাখ ২৫ হাজার বাসিন্দাকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেয়। এসব এলাকায় জলোচ্ছ্বাস, বন্যা ও ভূমিধসের মতো ঘটনা ঘটতে পারে বলে সরকারি কর্মকর্তারা সতর্ক করে দিয়েছেন।

চলতি বছর ফিলিপাইনে আঘাত হানা ২০তম ঘূর্নিঝড় হলো কামুরি। এর আঘাতে লুজনের বেশ কিছু বাড়ি ও স্থাপনা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে এবং শহরাঞ্চলে গাছাপালা ও বিজ্ঞাপনের বোর্ড উল্টে পড়েছে।

 

 

 

 

 

 

 

সুত্র: সকালের সময়

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved  2019 Joibanglanews.com এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা নিষেধ।
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
Translate »