বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ০৪:৪০ অপরাহ্ন

প্রতিনিধি আবশ্যক :
বহুল প্রচারিত অনলাইন পত্রিকা জয় বাংলা নিউজ ডট কম ( www.joibanglanews.com)এর জন্য জরুরী ভিত্তিতে দেশের বিভিন্ন জেলা, উপজেলা/থানা এবং বিশ্ববিদ্যালয় ভিত্তিক (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি আবশ্যক। আগ্রহী প্রার্থীদের পাসপোর্ট সাইজের ১ কপি ছবি, জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি, অভিজ্ঞতা ( যদি থাকে) উল্লেখ পূর্বক জীবন বৃত্তান্ত এবং মোবাইল নাম্বার সহ ইমেইলে ( joibanglanews@gmail.com ) আবেদন করতে হবে।
শিরোনাম :
ভারতীয় হাইকমিশনারের সাক্ষাৎ : বাংলাদেশের সন্ত্রাসবিরোধী অবস্থান পুনর্ব্যক্ত প্রধানমন্ত্রীর বাংলাদেশের ইতিহাসে কর্নেল শওকত অমর হয়ে থাকবেন…… স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী সরকার কাউকে বিশৃঙ্খলা করার অনুমতি দিতে পারে না…….তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বিজয়ের মাস ডিসেম্বর কাল শুরু ঢাকা- ময়মনসিংহ রেলপথে ট্টেন চলাচল স্বাভাবিক যশোরে গৃহবধূ অপহরনের ঘটনায় ১ মাস ৪ দিন পর মামলা আসামি আটক যশোরে দুর্বৃত্তদের ছোড়া এসিডে আকাশ নামে এক কিশোর দগ্ধ যশোর নোয়াপাড়ায় ভৈরব নদের তীরে কুমিরের দুই ঘণ্টা ‘রৌদ্রস্নান’ সাবধানতা অবলম্বনের আহ্বান যশোরে রনিসহ ১০জনের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি মামলা যশোরে মাদক মামলায় এক নারীকে দুই বছর কারাদন্ড / অর্থদন্ডের আদেশ
মনিরামপুরে ভুয়া সনদে চাকরি শিক্ষকের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা

মনিরামপুরে ভুয়া সনদে চাকরি শিক্ষকের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা

 

জয় বাংলা নিউজ প্রতিবেদক: যশোর মণিরামপুর উপজেলার কামিনীডাঙ্গা মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক কামরুল হাসানের বিরুদ্ধে চাকরিতে বিসিএস পরীক্ষার ভুয়া সনদপত্র দাখিলের অভিযোগে সোমবার আদালতে মামলা হয়েছে। বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক স্বপন কুমার রায় মামলাটি করেছেন। সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শম্পা বসু অভিযোগের তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) আদেশ দিয়েছেন। অভিযুক্ত মো. কামরুল হাসান একই উপজেলার দত্তকোনা গ্রামের আব্দুল হামিদ হাজরার ছেলে।
ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক স্বপন কুমার রায় মামলায় উল্লেখ করেছেন, কামরুল হাসান ২০১১ সালের ২৪ জুলাই কামিনীডাঙ্গা মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক হিসেবে যোগদানকালে তিনি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে ২০০৪ সালে যশোর এম এম কলেজ থেকে বিসিএস (সম্মান) অর্থনীতি বিভাগ হতে দ্বিতীয় শ্রেণিতে উত্তীর্ণ হয়েছেন মর্মে সত্যায়িত একটি ফটোকপি দাখিল করেন। সেই থেকে অদ্যাবধি তিনি সহকারী শিক্ষক হিসেবে বেতন ও ভাতাসহ সকল সুযোগ সুবিধা গ্রহণ করে আসছেন। এরই মধ্যে মন্ত্রণালয়ের আদেশ অনুযায়ী উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসে সকল শিক্ষকের শিক্ষাগত যোগ্যতার মূল সনদপত্র ও মার্কশিট দিতে বলা হয়। বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ এর প্রস্তুতি গ্রহণকালে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক স্বপন কুমার রায়ের কাছে গচ্ছিত বিসিএস পরীক্ষায় দ্বিতীয় শ্রেণিতে উত্তীর্ণের সত্যায়িত সনদের ফটোকপি কৌশলে তুলে নিয়ে তদস্থলে তৃতীয় শ্রেণিতে উত্তীর্ণের সনদপত্র রেখে দেন কামরুল হাসান। বিষয়টি জানতে পেরে কামরুল হাসানের কাছে প্রতারণার কৈফিয়ত চান স্বপন কুমার রায়। স্বদুত্তর না পেয়ে মামলা করেন।

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved  2019 Joibanglanews.com এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা নিষেধ।
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
Translate »