মঙ্গলবার, ২০ এপ্রিল ২০২১, ০৪:২৩ পূর্বাহ্ন

কাঁদলেন প্রধানমন্ত্রী

কাঁদলেন প্রধানমন্ত্রী

জয় ডেক্স : বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) নিহত শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদের খুনিদের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করার আশ্বাস দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আবরারের বাবা মা ভাই প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন।

এসময় প্রধানমন্ত্রী তাদের আশ্বস্ত করেন,‘এ ঘটনায় কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। দোষী যে দলেরই হোক তার সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করা হবে।’ এই কথাগুলো বলার পর প্রধানমন্ত্রীর চোখও ছলছল করছিল। এক পর্যায়ে তিনিও কেঁদে ফেলেন।

সোমবার আবরারের বাবা-মা ও ছোট ভাই গণভবনে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে গেলে এসব কথা বলেন তিনি। প্রধানমন্ত্রীর প্রেস উইং সূত্রে এ তথ্য জানা যায়।

সূত্র জানায়, বিকাল পাঁচটার একটু পরে আবরার ফাহাদের বাবা বরকত উল্লাহ, মা রোকেয়া বেগম এবং ছোট ভাই আবরার ফাইয়াজ গণভবনে যান। এ সময় তাদের সান্ত্বনা দেন শেখ হাসিনা।

প্রধানমন্ত্রী আবরারের পরিবারের উদ্দেশে বলেন, অপরাধীর রাজনৈতিক পরিচয় যাই হোক না কেন সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করা হবে। তিনি বলেন, কোনও সান্ত্বনাই আপনাদের যন্ত্রণা প্রশমন করতে পারবে না। কিন্তু সরকার এজন্য ত্বরিত ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। খুনিদের গ্রেপ্তার করেছে। দ্রুত তাদের বিচার শুরু হবে। প্রধানমন্ত্রী নিহত আববারের বাবা-মা ও ভাইকে সান্ত্বনা দেন।

সাক্ষাতের শুরুতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জড়িয়ে ধরেন আবরার ফাহাদের মা রোকেয়াকে। তখন প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমি ঘটনাটি শোনার সঙ্গে সঙ্গে সিসিটিভি ফুটেজ দেখে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছি। আমি দেখতে চাইনি কে কার লোক। অপরাধী কে বা কোন দল করে সেটা বিবেচনা করিনি।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ওই সময় কিছু শিক্ষার্থী ভিডিও ফুটেজ আটকানোর চেষ্টা করেছে। সেটা তারা কেন করেছে তা এখনো আমার বোধগম্য নয়। তা না হলে হয়তো সব অপরাধী আরও আগেই গ্রেপ্তার হতো।

তিনি আবরার ফাহাদের মায়ের উদ্দেশ্যে বলেন, আপনাকে সান্ত্বনা জানানোর ভাষা আমার জানা নেই। শুধু বলবো আমাকে দেখেন। স্বজন হারানোর বেদনা আমি বুঝি। আমিও এক রাতে সব হারিয়েছিলাম। আমি তখন বিচারও পাইনি।

এই সময় আবরার ফাহাদের মা রোকেয়া খাতুন ও বাবা বরকতউল্লাহ প্রশাসন ও দেশবাসীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান।

সাক্ষাৎকালে আরও উপস্থিত ছিলেন- আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ ও কুষ্টিয়া সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আতাউর রহমান।

 

 

 

সুত্র:সকালের সময়

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved  2019 Joibanglanews.com এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা নিষেধ।
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
Translate »