সোমবার, ২৭ Jun ২০২২, ০৩:০৫ অপরাহ্ন

প্রতিনিধি আবশ্যক :
বহুল প্রচারিত অনলাইন পত্রিকা জয় বাংলা নিউজ ডট কম ( www.joibanglanews.com)এর জন্য জরুরী ভিত্তিতে দেশের বিভিন্ন জেলা, উপজেলা/থানা এবং বিশ্ববিদ্যালয় ভিত্তিক (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি আবশ্যক। আগ্রহী প্রার্থীদের পাসপোর্ট সাইজের ১ কপি ছবি, জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি, অভিজ্ঞতা ( যদি থাকে) উল্লেখ পূর্বক জীবন বৃত্তান্ত এবং মোবাইল নাম্বার সহ ইমেইলে ( joibanglanews@gmail.com ) আবেদন করতে হবে।
সাগরদাড়ি ইউনিয়নের সাবেক সচিবের কারাদন্ড

সাগরদাড়ি ইউনিয়নের সাবেক সচিবের কারাদন্ড

জয় বাংলা নিউজ প্রতিবেদক:

যশোরে দুর্নীতি মামলায় কেশবপুর উপজেলার সাগরদাড়ি ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক সচিব মোস্তাফিজুর রহমানের কারাদন্ড ও অর্থদন্ড দিয়েছে আদালত। বৃহস্পতিবার স্পেশাল জজ মোহাম্মদ সামছুল হক এ আদেশ দেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন দুদকের পিপি জুলফিকার আলী ভুট্টো। আসামি মোস্তাফিজুর রহমান কেশবপুর উপজেলার বিদ্যানব্দকাঠী গ্রামের খোকন মোড়লের ছেলে।
আদালত সূত্র জানায়, ২০১৪ সালের ২৪ এপ্রিল কেশবপুর উপজেলার সাগড়দাড়ি ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান রাহাজ উদ্দীন বাদী হয়ে মোস্তাফিজুরের বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন কমিশন আইন ও দন্ডবিধির পৃথক ধারায় মামলা করেন।
মামলার তিনি উল্লেখ করেন, ২০০৩ সাল থেকে ২০১১ সাল পর্যন্ত রাহাজ উদ্দিন চেয়ারম্যান ছিলেন। এই সময়কালে ইউনিয়নে সচিবের দায়িত্বে ছিলেন মোস্তাফিজুর। এরমাঝে ২০১১ সালের ৪ জানুয়ারি এলজিএসপি থেকে পাঁচ লাখ ৫৬ হাজার ৩শ’ টাকা উন্নয়ন প্রকল্পে বরাদ্দ আসে। ওই টাকা কেশবপুর সোনালী ব্যাংকের ইউনিয়নের নিজেস্ব ব্যাংক হিসাবে জমা হয়। এরপর সচিব হিসেবে বাজেট বরাদ্দ পরিষদের মিটিং এ মোস্তাফিজুর জানান পাঁচ লাখ ছয় হাজার ৩শ’ টাকা বরাদ্দ এসেছে। একই সাথে ওই টাকা প্রকল্প সদস্যদের মধ্যে কর্মবন্টন করা হয়। এসময় তিনি বাকি ৫০ হাজার টাকার বিষয় গোপন করেন। পরে চেয়ারম্যানের স্বাক্ষর জাল করে তিনি দুই দফায় ওই ৫০ হাজার টাকা ব্যাংক থেকে উঠিয়ে নেন।
সর্বশেষ ২০১১ সালের জুলাই মাসে বাদী তার দায়িত্ব হস্তান্তরের সময় অডিট রিপোর্টে এ বিষয়টি জানতে পারেন। পরে বাদী নিজেই মোস্তাফিজুর রহমানের বিরুদ্ধে যশোরের স্পেশাল জজ আদালতে মামলা করেন। ২০১৭ সালের ২২ জুন দুদকের সমন্বিত যশোর জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক ওয়াজেদ আলী গাজী মামলাটি তদন্ত করে চার্জশিট জমা দেন। বৃহস্পতিবার ওই মামলার রায় ঘোষনার দিনে আসামির উপস্থিতিতে দন্ড বিধির ৪০৯ ধারায় তিন বছরের সশ্রম কারাদন্ড ও ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও চার মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ডের আদেশ দেন। এছাড়া ৪৬৭ ধারায় আসামিকে আরও তিন বছরের সশ্রম কারাদন্ড ও ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও চারমাসের বিনাশ্রম কারাদন্ডের আদেশ দেন।

 

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published.




© All rights reserved  2019 Joibanglanews.com এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা নিষেধ।
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
Translate »