মঙ্গলবার, ২৮ Jun ২০২২, ১১:৫২ পূর্বাহ্ন

প্রতিনিধি আবশ্যক :
বহুল প্রচারিত অনলাইন পত্রিকা জয় বাংলা নিউজ ডট কম ( www.joibanglanews.com)এর জন্য জরুরী ভিত্তিতে দেশের বিভিন্ন জেলা, উপজেলা/থানা এবং বিশ্ববিদ্যালয় ভিত্তিক (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি আবশ্যক। আগ্রহী প্রার্থীদের পাসপোর্ট সাইজের ১ কপি ছবি, জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি, অভিজ্ঞতা ( যদি থাকে) উল্লেখ পূর্বক জীবন বৃত্তান্ত এবং মোবাইল নাম্বার সহ ইমেইলে ( joibanglanews@gmail.com ) আবেদন করতে হবে।
যশোরে বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত

যশোরে বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত

জয় বাংলা নিউজ প্রতিবেদক:

যশোর জেলা বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশে দলের কেন্দ্রীয় যুগ্ম-মহাসচিব হাবিব উন-নবী খান সোহেল বলেছেন, দেশে আন্দোলনের দাবানল শুরু হয়ে গেছে। জনগণের সেই আন্দোলনে আওয়ামীলীগ পালাবার পথ খুঁজে পাবে। শ্রীলংকার সরকারের মত বাংলাদেশের জনগণও আওয়ামীলীগ সরকারকে এই রকম দৃশ্য পটে নিয়ে যাবে। সে দিন খুব বেশি দূরে নয়। বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়াসহ দেশের সিনিয়র নাগরিকদের নামে আওয়ামীলীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অসম্মানজনক বক্তব্য ও হত্যার হুমকির প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার জেলা বিএনপি কার্যালয়ের সামনে আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন।

সমাবেশে হাবিব উন-নবী সোহেল আরও বলেন, নিশি রাতের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জনগণের প্রতিনিধিত্ব করেন না। চোর, ডাকাত,হেলমেট বাহিনী, গোন্ডা মাস্তানদের প্রতিনিধিত্ব করেন। তিনি জনগণের অভিভাবক নন , সাবরিনা,পাপিয়া, হাজী সেলিম, জিকে শামীম,নিজাম হাজারি,শামীম ওসমান ,পিকে হালদারদের অভিভাবক। প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে বলেন, পদ্মা সেতু ওপর থেকে উনি কাকে ফেলে দেবেন। বেগম খালেদা জিয়া কোন সাধারণ নারী নন, তিনি দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় এবং আপোষহীন নেত্রী। যার স্বামী শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ঋণ উনি কখনো শোধ করতে পারবেন না। কারণ শহীদ জিয়া সেদিন শেখ হাসিনাকে রাজনীতি করার অধিকার দিয়েছিলন।  শ্রীলংকার মন্ত্রী, এমপিদের গায়ে কাপড় ছিল,দেশের জনগণ আওয়ামীলীগের অবৈধ মন্ত্রী এমপিদের গায়ে সেটিও রাখবে না । জনগণ তাদের সেই অবস্থা অচিরেই করে ছাড়বে।
বিক্ষোভ সমাবেশে জেলা বিএনপির আহ্বায়ক অধ্যাপক নার্গিস বেগম বলেন,দেশে আন্দোলনের মশাল জ্বলছে। সেই আন্দোলনে আওয়ামীলীগ জলে পুড়ে ছারখার হয়ে যাবে। জনগণের আন্দোলনের কাফেলা থামানোর সাহস কারও নেই । এই আন্দোলনে কতৃত্ববাদী সরকারের পতন অনিবার্য। সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, জেলা বিএনপির সদস্য সচিব অ্যাড. সৈয়দ সাবেরুল হক সাবু, যুগ্ম-আহ্বায়ক দেলোয়ার হোসেন খোকন, আহ্বায়ক কমিটির সদস্য আব্দুস সালাম আজাদ, আলহাজ্ব মিজানুর রহমান খাঁন, সদর উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক মোঃ নূর-উন-নবী, যুগ্ম-আহ্বায়ক কাজী আজম, মণিরামপুর পেীর বিএনপির আহ্বায়ক খায়রুল ইসলাম, অভয়নগর উপজেলা বিএনপির যুগ্ম-আহ্বায়ক কাজী গোলাম হায়দার ডাবলু, জেলা যুবদলের সভাপতি এম তমাল আহমেদ, জেলা মহিলাদলের সাধারণ সম্পাদিকা বীরমুক্তিযোদ্ধা ফেরদেীসী বেগম, জেলা শ্রমিকদলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আবু জাফর, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারন সম্পাদক মোস্তফা আমির ফয়সাল, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি রাজিদুর রহমান সাগর প্রমুখ। বিক্ষোভ সমাবেশ পরিচালনা করেন, জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য অ্যাড. হাজী আনিছুর রহমান মুকুল ও নগর বিএনপির যুগ্ম-আহ্বায়ক মুনির আহমেদ সিদ্দিকী বাচ্চু।

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published.




© All rights reserved  2019 Joibanglanews.com এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা নিষেধ।
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
Translate »