বৃহস্পতিবার, ১৯ মে ২০২২, ০৮:৩৬ অপরাহ্ন

প্রতিনিধি আবশ্যক :
বহুল প্রচারিত অনলাইন পত্রিকা জয় বাংলা নিউজ ডট কম ( www.joibanglanews.com)এর জন্য জরুরী ভিত্তিতে দেশের বিভিন্ন জেলা, উপজেলা/থানা এবং বিশ্ববিদ্যালয় ভিত্তিক (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি আবশ্যক। আগ্রহী প্রার্থীদের পাসপোর্ট সাইজের ১ কপি ছবি, জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি, অভিজ্ঞতা ( যদি থাকে) উল্লেখ পূর্বক জীবন বৃত্তান্ত এবং মোবাইল নাম্বার সহ ইমেইলে ( joibanglanews@gmail.com ) আবেদন করতে হবে।

কাঁচা আমে গুণ

জয় বাংলা নিউজ ডেস্ক:

আম কমকেশি সবাই খেতে পছন্দ করেন। কারণ, কাঁচা বা পাকা দুই ধরনের আমই শরীরের জন্য ভালো। গ্রীষ্মের গরমে কাঁচা আমের এক গ্লাস শরবত প্রশান্তি এনে দেয়। কাঁচা আমের রসে পটাশিয়াম থাকায় প্রচণ্ড গরমে তা শরীর ঠাণ্ডা রাখতে ভূমিকা রাখে। জেনে নিন কাঁচা আম খাওয়া উপকারিতাগুলো।

শরীরের ওজন কমাতে সহায়তা করে:

ওজন কমাতে বা শরীরের বাড়তি ক্যালরি খরচ করতে কাঁচা আম বেশ উপকারী। কারণ, পাকা আমের চেয়ে কাঁচা আমে চিনি কম থাকে বলে এটি দেহে খুব কম ক্যালরি সরবরাহ করে থাকে। পাশাপাশি শরীরে জমে থাকা অতিরিক্ত ক্যালরি পুড়াতেও সাহায্য করে।

ভিটামিন সি:

কাঁচা আমে আছে উচ্চমাত্রার ভিটামিন ‘সি’। দাঁত, চুল, নখ ভালো রাখার জন্য ভিটামিন ‘সি’ জরুরি। স্কার্ভি ও মাড়ির রক্ত পড়া কমায় কাঁচা আম। নিশ্বাসের দুর্গন্ধ ও দাঁতের ক্ষয় রোধেও সহায়তা করে মৌসুমী ফল কাঁচা আম। এ ছাড়া ভিটামিন ‘সি’ রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় এবং শরীরের ক্যালসিয়ামের প্রয়োজনীয়তা পূরণে সাহায্য করে, ফলে হাড় হয় শক্তিশালী। ভিটামিন ‘সি’ নতুন রক্ত কণিকা সৃষ্টিতে সাহায্য করে, আয়রনের শোষণে এবং রক্তপাতের প্রবণতা প্রতিরোধে ভূমিকা রাখে।

যকৃতের সমস্যা দূর করে:

কাঁচা আম খাওয়ার পর পিত্তথলির এসিড ও পিত্ত রস বৃদ্ধি পাওয়ার কারেণ যকৃতের স্বাস্থ্য ভালো থাকে। অন্ত্রের ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণও দূর হয়। তাই যকৃতের রোগ নিরাময়ের প্রাকৃতিক বন্ধু হতে পারে কাঁচা আম।

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published.




© All rights reserved  2019 Joibanglanews.com এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা নিষেধ।
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
Translate »