রবিবার, ২২ মে ২০২২, ০৪:০২ অপরাহ্ন

প্রতিনিধি আবশ্যক :
বহুল প্রচারিত অনলাইন পত্রিকা জয় বাংলা নিউজ ডট কম ( www.joibanglanews.com)এর জন্য জরুরী ভিত্তিতে দেশের বিভিন্ন জেলা, উপজেলা/থানা এবং বিশ্ববিদ্যালয় ভিত্তিক (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি আবশ্যক। আগ্রহী প্রার্থীদের পাসপোর্ট সাইজের ১ কপি ছবি, জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি, অভিজ্ঞতা ( যদি থাকে) উল্লেখ পূর্বক জীবন বৃত্তান্ত এবং মোবাইল নাম্বার সহ ইমেইলে ( joibanglanews@gmail.com ) আবেদন করতে হবে।
ভারসাম্যহীন ছেলের সাথে প্রতারণা করে জমি লিখে নিল তার মা

ভারসাম্যহীন ছেলের সাথে প্রতারণা করে জমি লিখে নিল তার মা

মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন তুহিন:

যশোর শহরের বারান্দী পাড়া এলাকার আব্দুল খালেকের স্ত্রী আয়শা পারভিন চক্রান্ত করে তার ভারসাম্যহীন সন্তান জাহিদ হোসেন সবুজের নিকট থেকে ৮৫.২৮ শতক জমি লিখে নেওয়ার অভিযোগে যশোর প্রেস ক্লাবে সবুজ হোসেন সংবাদ সম্মেলন করেন। সংবাদ সম্মেলনের কপি নিয়ে সরেজমিনে তদন্ত করে জানা যায় জাহিদ হোসেন সবুজের মা একজন স্কুল শিক্ষিকা এবং তিনি একজন লালন অনুরাগী। সেই সুবাদে আয়শা পারভীনের একমাত্র পুত্র সন্তান জাহিদ হোসেন সবুজকে লালন এর অনুসরণ করাতে সক্ষম হন।এবং জাহিদ হোসেন সবুজ কে লালন অনুসারী এক ভক্তের মেয়ের সাথে বিবাহ দেন।। আয়শা পারভিন বিবাহের দিন থেকে সবুজের বউকে বাবু সাহি এক গুরুজির অনুসরণ অনুকরণ করতে বাধ্য করেন। যাহা একমাত্র সন্তান জাহিদ হোসেন সবুজ বিষয়টি জানতে পেরে মায়ের কাছে প্রতিবাদ জানায় সেই অবস্থা থেকেই বিভিন্ন কারণে অকারণে সংসারে অশান্তি সৃষ্টি হয়। একপর্যায়ে আয়শা পারভিন একমাত্র সন্তান জাহিদ হোসেন সবুজের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ নিয়ে বাবু সাহি গুরুজির কাছে যান এবং বিভিন্ন চক্রান্ত করিতে থাকে। সবুজ ও সবুজের স্ত্রী মটরবাইকে করে হাশিমপুর যাওয়ার পথে সড়ক দূর্ঘটনায় সবুজের মাথার বামপাশ্বে প্রচুর রক্ত খনন হয়। উপস্থিত স্হানীয় লোকজন গুরুতর অবস্থায় তাকে২৫০ শয্য জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়।সিটি স্কিন ও অন্যান্য রিপোট করার পর অবস্থা অবনতি হলে কর্তব্যরত ডাক্তার ঢাকাতে রেফার করেন।সেখানে কিছুটা উন্নতি হলে ডাক্তার ভালো চিকিৎসার জন্য ভারতে যাওয়ার পরামর্শ দেন। জাহিদ হোসেন সবুজের ভারতীয় পাসপোর্টে ভিসা থাকা সত্বেও মা আয়শা পারভীন সহ তার বোন জামাই মিলে চক্রান্ত করে পাসপোর্ট ভিসা আটকিয়ে দেয়। এবং সম্পূর্ণ জালজালিয়াতির মাধ্যমে ভারসাম্যহীন অবস্থায় যশোর সাব রেজিঃ অফিসের মাধ্যমে একটি দলিল সৃষ্টি করেন। যাহার দলিল নং ৩৪৯৯/১৯ তাং ১১/৩/১৯। এই বিষয়ে আয়শা পারভিনের নিকট জানতে চাইলে তিনি জানান আমি লালন ভক্ত আমি লালনের অনুসরণ অনুকরণ করি। জমি লেখার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন আমার ছেলে অসুস্থ থাকায় ব- কলমে আঃ রহিম নামে এক ব্যক্তি টিপসহি ও দলিলে স্বাক্ষর করেন।। এই বিষয়ে যশোর সাব রেজিঃ অফিস ও এডিসি রেভিনিউ এর সঙ্গে কথা বললে তারা জানান আইনগত ভাবে জমি এভাবে লিখে নেওয়ার কোন আইন নাই। অন্য দিকে বাবু শাহির নিকট ঘটনার বিষয় জানতে চাইলে তিনি সত্যতা শিকার করে বলেন আয়শা পারভিন আমার শিশ্য ছিল কিন্তু উনি এখন আমার সাথে থাকে না। সবুজ এর নিকট থেকে জমি লিখে নিয়ে চরম অপরাধ করেছে। যারা লালন ভক্ত তারা কখনো লোভি নয়। এই বিষয়ে কল বাবু ওরুফে ভোলাসাহা নামের এক ব্যক্তির নিকট জানতে চাইলে তিনি জানান, আয়শা পারভিন আমার বুবু হয়। কেমন বুবু জানতে চাইলে তিনি বলে, লালনের অনুসরণি বুবু হয়। আমি এই জমি রেজিস্ট্রীর ব্যাপারে আয়শা পারভিনকে রেজিস্ট্রি অফিসে আমার এক পরিচিত লোকের সাথে পরিচয় করিয়ে দিয়। এর পর সবুজের নিকট হইতে তাহার মা ৮৫.২৮ শতক জমি লিখে নেয় তখন সবুজ অসুস্থ ছিল বলে তিনি জানান সেই সাথে তিনি আরো জানান আমি আমার বুবুর কাছে বলব জমি সবুজকে ফেরত দিতে।সবুজের দাবী সঠিকভাবে তদন্ত করে তার জমি ফেরৎ দেওয়া হোক।

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published.




© All rights reserved  2019 Joibanglanews.com এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা নিষেধ।
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
Translate »