রবিবার, ২২ মে ২০২২, ০৪:১০ অপরাহ্ন

প্রতিনিধি আবশ্যক :
বহুল প্রচারিত অনলাইন পত্রিকা জয় বাংলা নিউজ ডট কম ( www.joibanglanews.com)এর জন্য জরুরী ভিত্তিতে দেশের বিভিন্ন জেলা, উপজেলা/থানা এবং বিশ্ববিদ্যালয় ভিত্তিক (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি আবশ্যক। আগ্রহী প্রার্থীদের পাসপোর্ট সাইজের ১ কপি ছবি, জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি, অভিজ্ঞতা ( যদি থাকে) উল্লেখ পূর্বক জীবন বৃত্তান্ত এবং মোবাইল নাম্বার সহ ইমেইলে ( joibanglanews@gmail.com ) আবেদন করতে হবে।
বাংলাদেশের নতুন ভিসা সেন্টার কলকাতায় কার্যক্রম শুরু

বাংলাদেশের নতুন ভিসা সেন্টার কলকাতায় কার্যক্রম শুরু

জয় বাংলা নিউজ প্রতিবেদক:
কলকাতায় বাংলাদেশের নতুন ভিসা সেন্টারের কার্যক্রম শুরু হয়েছে। ২০২১ সালের বিজয় দিবসে বিধাননগর সল্টলেক সেক্টর ফাইভে আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হয়েছিল বাংলাদেশ ভিসা অ্যাপ্লিকেশন সেন্টারের। ভার্চ্যুয়াল উদ্বোধন করেছিলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেন। যেখানে ভিসা সংক্রান্ত কাজ করছে ভারতের একটি বেসরকারি সংস্থা।

সংস্থাটির কাজ আবেদনকারীর পাসপোর্ট জমা নেওয়া থেকে প্রাপকদের পাসপোর্ট ফেরত দেওয়া। তবে ভিসা দেওয়া বা না দেওয়ার ক্ষেত্রে সম্পূর্ণ সিদ্ধান্ত থাকছে কলকাতার বাংলাদেশ ডেপুটি হাই-কমিশনের হাতেই।

এদিকে নতুন অফিসে এসেছে অমুল পরিবর্তন। চকচকে শীততাপ নিয়ন্ত্রিত ১৩ হাজার স্কোয়ার ফিটের মধ্যে রয়েছে সব ব্যবস্থা। ৫০০ জন আবেদনকারী বসার ব্যবস্থা। বিত্তশালীদের জন্য প্রিমিয়াম লাউঞ্জ, ক্যাফে এরিয়া, পৃথক শৌচালয়, পানীয় জলের ব্যবস্থা, দেওয়াল জুড়ে বাংলাদেশের ইতিহাস, নারী-পুরুষের পৃথক নামাজ পড়ার ব্যবস্থা, বেবি ফিডিং রুম-সহ মোট ১৫টা কাউন্টরে সার্ভিস দিচ্ছেন ২৫ জন ভারতীয় স্টাফ। ভিসা আবেদনকারীরা প্রবেশ মাত্রই সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিচ্ছেন সেসব কর্মরতরা। বিমান বন্দরের মত ভেতরে নিয়ে যাওয়া যাবে না সিগারেট, পানসহ নেশার দ্রব্য। বন্ধ রাখতে হবে ল্যাপটপ।

জানা গেছে, একটা ভ্রমণ ভিসা পেতে প্রসেসিং ফি বাবদ ভারতীয়দের দিতে হচ্ছে ৮২৫ রুপি। তবে এ অর্থ বাংলাদেশ বা ভারত সরকার কেউ পাচ্ছে না। পাচ্ছে ওই বেসরকারি সংস্থাটি। এখানেই শেষ নয়, প্রয়োজনে একটা ফটোকপির জন্য দিতে হবে ১০ রুপি, প্রিন্ট আউট ১৫ রুপি, চার কপি ছবি ২শ’ রুপি এবং আবেদনকারীর ভিসা ফর্ম পূরণ করতে লাগবে ৩শ’ রুপি। অবশ্য অনলাইন ফর্ম বাইরে থেকেও পূরণ করা যাবে। এর বাইরে আছে ‘ফাস্ট ট্র্যাক’সার্ভিস। এছাড়া বাড়ি বসে ভিসা পেতে পাসপোর্ট প্রতি দিতে হবে ৪ হাজার রুপি এবং লাউঞ্জ ব্যবহারে মাথাপিছু লাগবে ৩৫শ’ রুপি। বাংলাদেশ ভিসার ফর্ম পূরণ করতে হবে অনলাইনে। তবে সার্ভার দুর্বল হওয়ায় ফর্ম পূরণ করতে সময় লাগছে ৩৫ থেকে ৪০ মিনিট। কলকাতার গড়িয়ার বাসিন্দা কৌশিক সেন, তার পরিবারের চার সদস্যর জন্য ফাস্ট ট্র্যাক সার্ভিস নিয়েছিলেন।

তিনি বলেন, সার্ভারে সমস্যার কারণে অনেক সময় লাগে। এর থেকে আগের সিস্টেম ভালো ছিল। দালালকে ৫০ রুপি দিয়ে ২ ঘণ্টা লাইনে দাঁড়িয়ে পাসপোর্ট জমা দেওয়া যেত। এখন সময়ের সঙ্গে রুপিও বেশি খরচ হয়।

এদিকে এ সমস্যার কথা স্বীকার করে কলকাতার বাংলাদেশ মিশনের সাবেক প্রধান তৌফিক হাসান বলেন, এমন সমস্যার কথা আমরা শুনেছি। বাংলাদেশ সরকারকে জানিয়েছি। দ্রুতই এর সমাধান হয়ে যাবে। এছাড়া এখন দালালের সমস্যা মোটামুটি সমাধান করা হয়েছে।

এদিকে বীরভূম জেলা থেকে আগত ভুবন মোল্লার মতে, ‘কলকাতা বা স্লটলেক আমাদের কাছে দুটোই সমান। কিন্তু জানি-ই না যে বাংলাদেশ মিশন বা উপদুতাবাস থেকে ভিসা দেওয়া বন্ধ হয়ে গেছে। আমার মত অনেককেই একবার মিশন গিয়ে খোঁজ নিয়ে সল্টলেক আসতে হচ্ছে। এতে অন্তত দেড় ঘণ্টা সময় লেগে যাচ্ছে।

বাংলাদেশ মিশন জানায়, অফিসের সার্ভিস নতুন চালু করা হয়েছে। তাই সবার জানতে একটু সময় লাগছে। তবে ওয়েবসাইট এবং সামাজিক মাধ্যমে সব তথ্য দেওয়া আছে। এদিকে নতুন ভিসা অফিস সম্বন্ধে অনেকেরই ধারণা না থাকায় বিভিন্ন জেলা থেকে আগতারা পুরনো ভিসা সেন্টারের বাইরে ফুটপাতে রাত কাটাচ্ছেন।

পশ্চিমবঙ্গ, উড়িষ্যা, বিহার, ঝাঢ়খন্ড, ছত্তিশগড় এবং সিকিম এই ছয়টি রাজ্য কলকাতার বাংলাদেশ মিশনের ভিসা জোনের আওতার মধ্যে পড়ে। মিশন থেকে বলা হয়েছে, আরও উন্নত পরিষেবা দেওয়া জন্য এমন একটি পাইলট প্রজেক্ট নেওয়া হয়েছে। প্রথম শুরু হয়েছে কলকাতায়। আগামীতে নিউ দিল্লি, মুম্বাই, চেন্নাই, আগরতলা এবং গোহাটি বাংলাদেশ মিশনে একই পদ্ধতি চালু করা হবে।

ফলে এই পাইলট প্রজেক্টের বড় সমস্যায় পড়েছে পশ্চিমবঙ্গবাসী। কারণ কলকাতা বাদে অন্যান্য মিশনে দিতে হচ্ছে না ভিসা প্রসেসিং ফি।অনেকেই বলেছেন, পশ্চিমবাংলা বাংলাদেশের বন্ধু। বাংলাদেশ সরকার এটি ভেবেচিন্তে অন্য মিশন থেকে এ কার্যক্রম শুরু করতে পারত।

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published.




© All rights reserved  2019 Joibanglanews.com এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা নিষেধ।
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
Translate »