বৃহস্পতিবার, ১৯ মে ২০২২, ০৯:০৬ অপরাহ্ন

প্রতিনিধি আবশ্যক :
বহুল প্রচারিত অনলাইন পত্রিকা জয় বাংলা নিউজ ডট কম ( www.joibanglanews.com)এর জন্য জরুরী ভিত্তিতে দেশের বিভিন্ন জেলা, উপজেলা/থানা এবং বিশ্ববিদ্যালয় ভিত্তিক (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি আবশ্যক। আগ্রহী প্রার্থীদের পাসপোর্ট সাইজের ১ কপি ছবি, জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি, অভিজ্ঞতা ( যদি থাকে) উল্লেখ পূর্বক জীবন বৃত্তান্ত এবং মোবাইল নাম্বার সহ ইমেইলে ( joibanglanews@gmail.com ) আবেদন করতে হবে।
বেনাপোল স্থলবন্দরে বোমা হামলা মামলায় আটক সম্রাটের আদালতে স্বীকারোক্তি

বেনাপোল স্থলবন্দরে বোমা হামলা মামলায় আটক সম্রাটের আদালতে স্বীকারোক্তি

 

জয় বাংলা নিউজ প্রতিবেদক:
যশোরের বেনাপোল স্থলবন্দরের আধিপত্য বিস্তার নিয়ে বোমাবাজির ঘটনার মামলায় আটক সম্রাট আদালতে স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দি দিয়েছে। সম্রাট বেনাপোলের রঘুনাথপুর গ্রামের বিল্লাহ হোসেন ওরফে বিল্লাল হোসেনের ছেলে।
ওইদিন বন্দরের দখলদারিত্ব বজায় রাখার উদ্যেশে কাউন্সিলর রাশেদ আলীর নেতৃত্বে সিমান্ত, মাহাতব উদ্দিন, শরিফুলসহ এজাহারনামীয় ৩৬ জনসহ আরও অনেকে বোমা হামলা ও ভাংচুর চালিয়েছিল বলে জবানবন্দিতে জানিয়েছে স¤্রাট। সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক পলাশ কুমার দালাল আসামির এ জবানবন্দি গ্রহণ শেষে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন।
সম্রাট জানিয়েছে, বেনাপোল স্থল বন্দরের আধিপত্য বিস্তার নিয়ে শ্রমিক ইউনিয়ন ৯২৫ এর সাথে রাশেদ গ্রুপের সাথে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। দিনদিন রাশেদের আধিপত্য কমে যাচ্ছে। ফলে রাশেদের নেতৃত্বে বন্দরের অবস্থান ধরে রাখতে পরিকল্পনা করে হামলার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। গত ২৮ মার্চ পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী বন্দরের আধিপত্য ধরে রাখতে সকালে রাশেদ আলীর নেতৃত্বে মামলার এজাহারনামীয় সকলে বোমা হামলা ও ভাংচুর চালানো হয়। এ সময় মুহূরমুহূ বোমা হামলা চালানো হয়। বোমায় প্রতি পক্ষের শ্রমিকরা পিছু হটতে বাধ্য হয়। এক পর্যায়ে পুলিশ ধাওয়া করলে রাশেদ ও তার লোকজন বন্দরের বিভিন্ন সরকারি স্থাপনায় হামলা চালিয়ে পিছু হটে যায়। এ ঘটনার সাথে এজাহারনামীয় আসামিরাসহ রাশেদ গ্রুপের নাম নাজানা আরও অনেকে জড়িত বলে জানিয়েছে সম্রাট।মামলার অভিযোগে জানা গেছে, গত ২৮ মার্চ সকালে কাউন্সিলর রাশেদ আলীর নেতৃত্বে বন্দরের বিভিন্ন জায়গায় বোমা হামলা চালানো হয়। এরপর রাশেদ আলী ৫০/৬০ জন নিয়ে বন্দরের ভিতরে ঢোকার চেষ্টা করে।
শ্রমিকরা বাধা দিলে রাশেদ, স¤্রাট, মিকাইল, শাহীন, বোমা হামলা করে তাদের প্রতিহত করার চেষ্টা করে। এ সময় বোমায় জুলফিকার আলী, শওকত আলী, কামরুল ইসলাম, আজিজুল ইসলাম, আব্দুল আলিম, লিটু বাবু, লিয়াকত হোসেন, সোহরাব হোসেন, আব্দুস সামাদ, আলী হোসেন, নয়ন হোসেন গুরুতর আহত হয়। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। এব্যাপারে বেনাপোল শ্রমিক ইউনিয়ন ৯২৫ এর সভাপতি রাজু আহম্মেদ বাদী হয়ে কউন্সিলর রাশেদসহ ৩৬ জনের নাম উল্লেকসহ অপরিচিত আরও ২০/২৬ জনকে আসামি করে সন্ত্রাস বিরোধী আইনে মামলা করেন। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই রোকনুজ্জামান মামলার অন্যতম আসামি স¤্রাটকে আটক করে শনিবার আদালতে সোপর্দ করেন। স¤্রাট ঘটনার সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন বলে নিশ্চিত করেছেন তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই রোকনুজ্জামান।

 

 

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published.




© All rights reserved  2019 Joibanglanews.com এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা নিষেধ।
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
Translate »