বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১, ০১:২৯ অপরাহ্ন

প্রতিনিধি আবশ্যক :
বহুল প্রচারিত অনলাইন পত্রিকা জয় বাংলা নিউজ ডট কম ( www.joibanglanews.com)এর জন্য জরুরী ভিত্তিতে দেশের বিভিন্ন জেলা, উপজেলা/থানা এবং বিশ্ববিদ্যালয় ভিত্তিক (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি আবশ্যক। আগ্রহী প্রার্থীদের পাসপোর্ট সাইজের ১ কপি ছবি, জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি, অভিজ্ঞতা ( যদি থাকে) উল্লেখ পূর্বক জীবন বৃত্তান্ত এবং মোবাইল নাম্বার সহ ইমেইলে ( joibanglanews@gmail.com ) আবেদন করতে হবে।
শিরোনাম :
হামলা ও নৈরাজ্য সৃষ্টির প্রতিবাদে যশোর ঝিকরগাছায়  এক সমাবেশ অনুষ্ঠিত দেশে সাম্প্রদায়িক হামলা / মামলায় ৪৫০জন গ্রেপ্তার প্রশ্নফাঁসে জড়িতদের সর্বনিম্ন ৩ এবং সর্বোচ্চ ১০ বছরের কারাদণ্ড কুমিল্লার ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে  নির্দেশ সারাদেশে  ২৪ ঘণ্টায় করোনা ভাইরাসে ৭ জনের মৃত্যু যশোর শিক্ষা বোর্ডের দুর্নীতি সময় চেয়েছে তদন্ত কমিটি যশোরে সামপ্রদায়িক সন্ত্রাস রুখে দেওয়ার ঘোষণা যুবলীগের যবিপ্রবিতে ফিজিওথেরাপি চিকিৎসায় রোবোটিক্স প্রযুক্তি ব্যবহার শীর্ষক সেমিনার যশোর শহর যুবলীগের যুগ্ন আহবায়ক মেহেবুব রহমান ম্যানসেলের আয়োজনে  কেক কেটে শহীদ শেখ রাসেলের ৫৮তম জন্মদিন পালন আজ শেখ রাসেলের ৫৮তম জন্মদিন
শান্তি ও নিরাপত্তায় বলিষ্ঠ ভূমিকায়- ইসরাফিল আলম এম,পি……………..

শান্তি ও নিরাপত্তায় বলিষ্ঠ ভূমিকায়- ইসরাফিল আলম এম,পি……………..

বিজ্ঞাপন

 

 

ওমর ফারুক,নওগাঁ জেলা প্রতিনিধি: শান্তি ও নিরাপত্তায় বলিষ্ঠ ভূমিকায় ইসরাফিল আলম এম,পি। এক সময় আত্রাই রাণীনগর নওগাঁ-০৬ আসন রক্তাক্ত জনপদ হিসেবে পরিচিত ছিল। ঘুম থেকে সকালে উঠলেই শোনা যেত কোন না কোন জায়গায় মানুষের লাশ পড়ে আছে। কঠিন নিরাপত্তাহীনতায় ছিল এলাকার সর্বস্তরের জনগণ।

বিশেষ করে বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের সময় সর্বহারা,জেএমবির দ্বারা মানুষ প্রতিনিয়ত নির্যাতিত হয়েছে। বিভিন্ন লোকজনদেরকে ধরে টাকা পয়সা দাবি করত। দিতে ব্যর্থ হলেই তার উপর নেমে আসতো অমানবিক নির্যাতন। প্রশাসনের যেন নীরব ভূমিকা পালন করত।

কোথায়ও হাত পা ভেঙে ফেলা অথবা শরীর থেকে হাত পা বিচ্ছিন্ন করা নতুবা মাথায় আঘাত করে যখম করা।আবার কোথাও নিরীহ মানুষকে তুলে নিয়ে গাছের সাথে টাঙিয়ে ঝুলন্ত অবস্থায় মারপিট করা।

তবে সুদিনটা সেদিনই আসলো যখন আত্রাই রাণীনগরের মাটিতে মোঃ ইসরাফিল আলম দেবদূত হয়ে আবির্ভূত হলেন। ২০০১ সালে প্রার্থী হয়ে এসে তিনি এই এলাকায়, স্থানীয় জনগণ ও প্রশাসন কে সাথে নিয়ে তিনি এক বিশেষ অভিযান শুরু করলেন। তবে প্রথমবার প্রার্থী হিসেবে পরাজিত হয়েও দুঃখ না পেয়ে মানুষের ভালোবাসায় সিক্ত হয়ে উজ্জীবিত মনে, নতুন উদ্যমে কাজ শুরু করলেন।

তিনি বলেছিলেন আমি যে এমপি হতে পারিনি  তাতে কোন দুঃখ নেই, মানুষের ভালোবাসা আমার সাথে আছে। আমি আমার অবস্থান থেকে একচুলও সরে দাঁড়াবো না। দিনের পর দিন, রাতের পর রাত তিনি বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে বিভিন্ন জনগনের সহযোগিতায় তিনি কাজ করে গিয়েছেন।

পরবর্তীতে ২০০৮ সালের জাতীয় নির্বাচনে প্রার্থী হয়ে তিনি জয়ী হন। এবং কঠোর হস্তে দুর্নীতি ও সন্ত্রাস নির্মূল অভিযান শুরু করেন। সফলতার পাল্লাটাও আস্তে আস্তে ভারি হতে থাকে। আত্রাই রাণীনগর ধীরে ধীরে সন্ত্রাস মুক্ত এলাকা হিসেবে চিহ্নিত হতে থাকে।

মানুষ মনে রেখেছে যার কারণে আত্রাই রাণীনগর এক সময় যে রক্তাক্ত জনপদ ছিল সেখান থেকে শান্তির ধারায় ফিরে এসেছে এবং মানুষ সর্বোচ্চ নিরাপত্তার চাদরে জড়িয়ে আছে। যার ফলশ্রুতিতে মানুষ তিন তিনবার নির্বাচিত করেছেন মোঃ ইসরাফিল আলম এমপি কে।

এই এলাকার সর্বস্তরের মানুষ বিশ্বাস করে এবং অকপটে স্বীকার করে যে, শান্তি উন্নয়ন ও নিরাপত্তায় মোঃ ইসরাফিল আলম এমপির ভূমিকা অনস্বীকার্য। মানুষের চলাফেরার নিরাপত্তা রয়েছে কথা বলার অধিকার রয়েছে, কাজ করার স্বাধীনতা রয়েছে। তাই আত্রাই রাণীনগর এলাকায় তিনি জননন্দিত নেতা হিসেবে সুপরিচিতি লাভ করেছেন। এই এলাকার মানুষের কাছে তিনি শান্তি ও নিরাপত্তায় বলিষ্ঠ ভূমিকায় একটি আশীর্বাদ।

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved  2019 Joibanglanews.com এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা নিষেধ।
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
Translate »