শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৯:৩৮ পূর্বাহ্ন

যশোরে শারদীয় দুর্গোৎসবের জন্য প্রস্তুত ৬২৮ মন্ডপ

যশোরে শারদীয় দুর্গোৎসবের জন্য প্রস্তুত ৬২৮ মন্ডপ

শহিদ জয় : যশোরে করোনা পরিস্থিতির কারণে এবার কমেছে দুর্গাপূজার আড়ম্বর। চলমান পরিস্থিতিতে এবছর পূজা উৎসব নয় ধর্মীয় রীতিতেই থাকবে সীমাবদ্ধ। আগামী ২২ অক্টোবর থেকে শুরু হচ্ছে বাঙালি সনাতন ধর্মাবলম্বীদের বৃহৎ ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা। সাজসজ্জা, মেলা ছাড়াই এবার পুজো হবে। কুমারী পূজাও হবে স্বল্প পরিসরে। যশোরে এবার ৬২৮টি মন্ডপে শারদীয় দুর্গাপূজার আয়োজন করা হয়েছে। তবে করোনা মহামারিতে স্বাস্থ্যবিধি মেনেই পূজার কার্যাদি সম্পন্ন করার নির্দেশ রয়েছে প্রশাসনের।
জেলা প্রশাসনের নির্দেশে আগেই জানানো হয়েছে, মাস্ক-ছাড়া কেউ পূজামন্দির পরিদর্শনে আসতে পারবেন না। আলোকসজ্জা ও মেলাও বসবে না পূজামন্ডপ প্রাঙ্গণে। একইসাথে জনসমাগম কমাতে অনলাইনের মাধ্যমেও পূজার কার্যক্রম প্রচার করার আহ্বান করা হয়।
যশোর জেলা পূজা উৎযাপন পরিষদ সূত্রে জানা গেছে, যশোর সদর উপজেলায় এবার ১২৮টি, ঝিকরগাছায় ৪৪টি, শার্শায় ২৬টি, চৌগাছায় ৩৯টি, অভয়নগরে ১২২টি, মণিরামপুরে ৯৩টি, বাঘারপাড়ায় ৮১টি এবং কেশবপুরে ৯১টি মন্ডপে দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হবে। ইতিমধ্যে সকল মন্দিরে প্রতিমা তৈরির কাজ শেষ হয়েছে। দুর্গা দেবীর আগমন হবে এবার দোলায় আর বিদায় নেবেন গজে চড়ে। ২১ অক্টোবর বিকেল সাড়ে পাঁচটায় দেবি বোধনের মধ্যে দিয়ে ২২ অক্টোবর শুরু হবে ষষ্ঠী। এদিন সকাল সাড়ে ৬টায় দেবীর আমন্ত্রণ ও অধিবাস এবং পূজা আরম্ভ বিকেল সাড়ে পাঁচটায়। ২৩ অক্টোবর বিকেল পাঁচটায় সপ্তমী, ২৪ অক্টোবর মহাষ্টমী ভোর সাড়ে ৫টায়, সন্ধিপূজা সাতটা পাঁচ মিনিট হতে সাতটা ৫৬ মিনিট পর্যন্ত, সকাল ১১টায় কুমারী পূজা ও বেলা সাড়ে ১২টায় পুষ্পাঞ্জলি, ২৫ অক্টোবর মহানবমী, ২৬ অক্টোবর দশমী শুরু হবে সকাল সাড়ে নয়টায় শেষ হবে।
জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক যোগেশ দত্ত জানান, পূজা সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্যে ইতিমধ্যে সরকারিভাবে বরাদ্ধ দেয়া হচ্ছে। ১৩২টি পূজা মন্ডপে ১৬ হাজার ৪শ’ করে টাকা দেয়া হয়েছে। সব মন্ডপে সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে পূজা পরিচালনার জন্যে প্রশাসন কাজ শুরু করেছে। তবে তিনি মহামারি কোভিড-১৯-এর ব্যাপারটা মাথায় নিয়ে সকলকে মন্দির পরিদর্শনের আহ্বান জানান।
জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি অসীম কু-ু জানান, প্রশাসনের পক্ষ থেকে এবার বৈশ্বিক মহামারি কোভিড-১৯-এ যথাযথভাবে স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করা, পূজা মন্ডপগুলোতে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা, স্বেচ্ছাসেবক নিয়োজিত করা, পূজামন্ডপে আগত শিশু ও নারী দর্শনার্থীদের নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ, দুর্ঘটনারোধে ব্যবস্থা গ্রহণ, বিদ্যুৎ ব্যবস্থা স্বাভাবিক রাখা, যানজট নিরসন, রাস্তা অতিদ্রুত সংস্কার, নিয়ন্ত্রণ কক্ষ স্থাপন করা, একইসাথে উচ্চস্বরে মাইক বা বক্স বাজানো, সাজসজ্জা, আলোকসজ্জা ও কোনো সাংস্কৃতিক ইভেন্ট থেকে বিরত থাকার আহবান জানানো হয়েছে।

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved  2019 Joibanglanews.com এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা নিষেধ।
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
Translate »