বৃহস্পতিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৭:৫৪ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
ব্রাজিলে প্রাণহানি ১ লাখ ৪৫ হাজার ছুঁই ছুঁই

ব্রাজিলে প্রাণহানি ১ লাখ ৪৫ হাজার ছুঁই ছুঁই

জয় ডেস্ক : লাতিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিলে অব্যাহত রয়েছে করোনার তাণ্ডব। যেখানে নতুন করে ৮শ’র বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। এতে করে প্রাণহানি বেড়ে ১ লাখ ৪৫ হাজার ছুঁই ছুঁই। আক্রান্ত বেড়ে সাড়ে ৪৮ লাখে দাঁড়িয়েছে। পক্ষান্তরে কমেছে সুস্থতা। অবস্থার উন্নতি নেই এ অঞ্চলের পেরু, কলম্বিয়া, চিলি ও আর্জেন্টিনার মতো দেশগুলোতেও।

ব্রাজিলের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে জরিপ সংস্থা ওয়ার্ল্ডোমিটারের নিয়মিত পরিসংখ্যানে বলা হয়েছে, দেশটিতে গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৫ হাজার ৬৪৩ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৪৮ লাখ ৪৯ হাজার ২২৯ জনে দাঁড়িয়েছে। নতুন করে প্রাণ হারিয়েছেন ৮০৫ জন। এতে করে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১ লাখ ৪৪ হাজার ৭৬৭ জনে ঠেকেছে।

অপরদিকে, সুস্থতা লাভ করেছেন আরও ৩২ হাজারের অধিক ভুক্তভোগী। এতে করে বেঁচে ফেরার সংখ্যা ৪২ লাখ ১২ হাজার ৭৭২ জনে পৌঁছেছে।

গত ২৬ ফেব্রুয়ারি দেশটির সাও পাওলো শহরে ৬১ বছর বয়সী ইতালি ফেরত এক জনের শরীরে ভাইরাসটি প্রথম শনাক্ত হয়। এরপর থেকেই অবস্থা ক্রমেই সংকটাপন্ন হতে থাকে। যেখানে আক্রান্ত ও প্রাণহানির তালিকায় অনেক চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মী রয়েছেন।

তবে শুধু ব্রাজিলই নয়, করোনার ভয়াবহতা ছড়িয়ে পড়েছে গোটা লাতিন আমেরিকার অন্যান্য দেশগুলোতেও। যেখানে পূর্বের তুলনায় ভাইরাসটির দাপট অনেকটা বেড়েছে। এমন অবস্থায় করোনাকে বাগে আনতে দেশগুলোর সরকার মানুষকে ঘরে রাখতে চেষ্টা করছেন। কিন্তু অর্থনীতির চাকা সচল থাকা নিয়ে রয়েছে যত দুশ্চিন্তা। ফলে সংকটাবস্থার মধ্য দিয়ে ব্রাজিল, পেরু, চিলি, ইকুয়েডর ও আর্জেন্টিনার মতো দেশগুলোতে অনেক কিছুই চালু রয়েছে।

এর মধ্যে ব্রাজিলে সবচেয়ে ভয়াবহ অবস্থা। যা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে ছাড়িয়ে যেতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। দেশটিতে আক্রান্তদের চিকিৎসা দিতে গিয়ে বেশ বিপাকে পড়তে হচ্ছে চিকিৎসা কেন্দ্রগুলোকে। অপরদিকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা দ্বিতীয় দফায় করোনা আরও ভয়াবহ রূপ নিতে পারে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও ইউরোপে ধ্বংসযজ্ঞ চালানোর পর ব্রাজিল ভাইরাসটির এখন প্রধানকেন্দ্রে পরিণত হয়েছে। একই সঙ্গে এ অঞ্চলের অন্যান্য দেশগুলোতে দ্রুত বিস্তার লাভ করায় কলম্বিয়া, পেরু ও আর্জেন্টিনারমতো দেশগুলোর প্রত্যেকটিতে আক্রান্ত ৭ লাখ ছাড়িয়ে গেছে।

এর মধ্যে কলম্বিয়ায় শনাক্ত ৮ লাখ ৩৫ হাজারের বেশি। এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ২৬ হাজার ১৯৬ জনের।

পেরুতে আক্রান্ত ৮ লাখ ১৮ হাজার ছাড়িয়ে গেছে। যেখানে মৃতের সংখ্যা ৩২ হাজার ৫৩৫ জনে ঠেকেছে।

আর্জেন্টিনায় সংক্রমিতের সংখ্যা ৭ লাখ ৬৫ হাজার। মৃত্যু হয়েছে ২০ হাজার ২৮৮ জনের।

চিলিতে সংক্রমিত ৪ লাখ ৬৫ হাজারের কাছাকাছি। এর মধ্যে ১২ হাজার ৮২২ জনের প্রাণ কেড়েছে করোনা।

জয় বাংলা নিউজ/সস

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved  2019 Joibanglanews.com এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা নিষেধ।
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
Translate »