শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৪:৩১ অপরাহ্ন

নিরাপদ ও সাশ্রয়ী নৌপথ নিশ্চিতে নৌপ্রতিমন্ত্রীর

নিরাপদ ও সাশ্রয়ী নৌপথ নিশ্চিতে নৌপ্রতিমন্ত্রীর

ঢাকা অফিস : নিরাপদ ও সাশ্রয়ী নৌপথ নিশ্চিত করতে নৌ-সংশ্লিষ্ট সবাইকে সমন্বিতভাবে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী। বৃহস্পতিবার রাজধানীর বিআইডব্লিউটিএ ভবনে বিশ্ব নৌ দিবস উপলক্ষে অনুষ্ঠিত সভায় ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হয়ে প্রতিমন্ত্রী এ আহ্বান জানান। নৌপরিবহন অধিদফতর এবং বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ) যৌথভাবে এই আলোচনা সভার আয়োজন করে। ‘টেকসই নৌপরিবহন টেকসই বিশ্ব’ স্লোগানকে প্রতিপাদ্য করে এ বছর বিশ্ব নৌ দিবস পালিত হচ্ছে।
প্রতিমন্ত্রী বলেন, নৌযান মালিক ও শ্রমিকদের পারস্পরিক বোঝাপড়া বৃদ্ধি, দক্ষ ও চৌকস নাবিক তৈরি করতে নৌ শিক্ষার আধুনিকায়ন, নদী দূষণ ও দখল করা থেকে বিরত রাখা নিশ্চিত করতে হবে। নৌপথকে আরও জনপ্রিয়, আরামপ্রদ ও সাশ্রয়ী করতে পারলে সড়ক ব্যবস্থার উত্তম বিকল্প হিসেবে নৌপথ বিশেষ গুরুত্ব পাবে। নৌপথে আইনের যথাযথ প্রয়োগ ও বিশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে নিয়ন্ত্রক সংস্থা হিসাবে নৌপরিবহন অধিদফতরকে কার্যকর ভূমিকা রাখতে হবে।
খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, দেশে উচ্চতর মেরিটাইম শিক্ষা নিশ্চিত করতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেরিটাইম বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করা হয়েছে। চট্টগ্রামের মেরিন একাডেমির পাশাপাশি সিলেট, বরিশাল, পাবনা ও রংপুর- এই ৪ অঞ্চলে আরও চারটি মেরিন একাডেমি কার্যক্রম শুরু করেছে, যার মাধ্যমে নৌখাতে আরও দক্ষ জনবল বৃদ্ধি পাবে।
তিনি বলেন, সমুদ্রবেষ্টিত হওয়ায় সুনীল অর্থনীতির (ব্লু ইকোনমি) অপার সম্ভাবনা ও ভূ-রাজনৈতিক অবস্থান বিবেচনায় বাংলাদেশ পৃথিবীর বুকে একটি গুরুত্বপূর্ণ দেশ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত। সুনীল অর্থনীতির পরিপূর্ণ বাস্তবায়নে আমাদেরকে কিছু চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করতে হচ্ছে। সুনীল অর্থনীতির সম্ভাবনাকে কাজে লাগাতে একটি সবল নীতিকাঠামো গঠন করা প্রয়োজন। এই কাজ সম্পাদনের জন্য স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক বিশেষজ্ঞ সমন্বয়ে একটি টাস্কফোর্স গঠন করে পরবর্তী প্রয়োজনীয় কার্যক্রম গ্রহণ করা হবে।
তিনি আরও বলেন, সুনীল অর্থনীতির উন্নয়নে বিনিয়োগের বেশিরভাগই আসতে হবে বেসরকারি খাত থেকে। সুনীল অর্থনীতিতে বেসরকারি বিনিয়োগ বাড়ানোর জন্য যথোপযুক্ত প্রণোদনা ও নিয়ন্ত্রণমূলক নীতিমালা গ্রহণ করা হবে। নতুন জ্ঞান, প্রযুক্তি ও বিনিয়োগ বৃদ্ধির জন্য সরাসরি বৈদেশিক বিনিয়োগের ভূমিকা বিস্তৃত করা হবে। দেশীয় উদ্যোক্তাদের ব্লু ইকোনমি নিয়ে কাজ করার প্রস্তুতি নেয়ার আহ্বানও জানান প্রতিমন্ত্রী।

নৌপরিবহন অধিদফতরের মহাপরিচালক কমোডর এ জেড এম জালাল উদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি রফিকুল ইসলাম (বীর উত্তম) মোবাইল ফোনে বক্তব্য দেন। এছাড়া নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সচিব মোহাম্মদ মেজবাহ্ উদ্দিন চৌধুরী এবং বিআইডব্লিউটির চেয়ারম্যান কমডোর গোলাম সাদেক সভায় বক্তব্য রাখেন।
নিরাপদ ও সাশ্রয়ী নৌপথ নিশ্চিতে নৌপ্রতিমন্ত্রীর
ঢাকা অফিস : নিরাপদ ও সাশ্রয়ী নৌপথ নিশ্চিত করতে নৌ-সংশ্লিষ্ট সবাইকে সমন্বিতভাবে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী। বৃহস্পতিবার রাজধানীর বিআইডব্লিউটিএ ভবনে বিশ্ব নৌ দিবস উপলক্ষে অনুষ্ঠিত সভায় ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হয়ে প্রতিমন্ত্রী এ আহ্বান জানান। নৌপরিবহন অধিদফতর এবং বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ) যৌথভাবে এই আলোচনা সভার আয়োজন করে। ‘টেকসই নৌপরিবহন টেকসই বিশ্ব’ স্লোগানকে প্রতিপাদ্য করে এ বছর বিশ্ব নৌ দিবস পালিত হচ্ছে।
প্রতিমন্ত্রী বলেন, নৌযান মালিক ও শ্রমিকদের পারস্পরিক বোঝাপড়া বৃদ্ধি, দক্ষ ও চৌকস নাবিক তৈরি করতে নৌ শিক্ষার আধুনিকায়ন, নদী দূষণ ও দখল করা থেকে বিরত রাখা নিশ্চিত করতে হবে। নৌপথকে আরও জনপ্রিয়, আরামপ্রদ ও সাশ্রয়ী করতে পারলে সড়ক ব্যবস্থার উত্তম বিকল্প হিসেবে নৌপথ বিশেষ গুরুত্ব পাবে। নৌপথে আইনের যথাযথ প্রয়োগ ও বিশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে নিয়ন্ত্রক সংস্থা হিসাবে নৌপরিবহন অধিদফতরকে কার্যকর ভূমিকা রাখতে হবে।
খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, দেশে উচ্চতর মেরিটাইম শিক্ষা নিশ্চিত করতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেরিটাইম বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করা হয়েছে। চট্টগ্রামের মেরিন একাডেমির পাশাপাশি সিলেট, বরিশাল, পাবনা ও রংপুর- এই ৪ অঞ্চলে আরও চারটি মেরিন একাডেমি কার্যক্রম শুরু করেছে, যার মাধ্যমে নৌখাতে আরও দক্ষ জনবল বৃদ্ধি পাবে।
তিনি বলেন, সমুদ্রবেষ্টিত হওয়ায় সুনীল অর্থনীতির (ব্লু ইকোনমি) অপার সম্ভাবনা ও ভূ-রাজনৈতিক অবস্থান বিবেচনায় বাংলাদেশ পৃথিবীর বুকে একটি গুরুত্বপূর্ণ দেশ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত। সুনীল অর্থনীতির পরিপূর্ণ বাস্তবায়নে আমাদেরকে কিছু চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করতে হচ্ছে। সুনীল অর্থনীতির সম্ভাবনাকে কাজে লাগাতে একটি সবল নীতিকাঠামো গঠন করা প্রয়োজন। এই কাজ সম্পাদনের জন্য স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক বিশেষজ্ঞ সমন্বয়ে একটি টাস্কফোর্স গঠন করে পরবর্তী প্রয়োজনীয় কার্যক্রম গ্রহণ করা হবে।
তিনি আরও বলেন, সুনীল অর্থনীতির উন্নয়নে বিনিয়োগের বেশিরভাগই আসতে হবে বেসরকারি খাত থেকে। সুনীল অর্থনীতিতে বেসরকারি বিনিয়োগ বাড়ানোর জন্য যথোপযুক্ত প্রণোদনা ও নিয়ন্ত্রণমূলক নীতিমালা গ্রহণ করা হবে। নতুন জ্ঞান, প্রযুক্তি ও বিনিয়োগ বৃদ্ধির জন্য সরাসরি বৈদেশিক বিনিয়োগের ভূমিকা বিস্তৃত করা হবে। দেশীয় উদ্যোক্তাদের ব্লু ইকোনমি নিয়ে কাজ করার প্রস্তুতি নেয়ার আহ্বানও জানান প্রতিমন্ত্রী।

নৌপরিবহন অধিদফতরের মহাপরিচালক কমোডর এ জেড এম জালাল উদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি রফিকুল ইসলাম (বীর উত্তম) মোবাইল ফোনে বক্তব্য দেন। এছাড়া নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সচিব মোহাম্মদ মেজবাহ্ উদ্দিন চৌধুরী এবং বিআইডব্লিউটির চেয়ারম্যান কমডোর গোলাম সাদেক সভায় বক্তব্য রাখেন।

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved  2019 Joibanglanews.com এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা নিষেধ।
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
Translate »