রবিবার, ০১ অগাস্ট ২০২১, ১০:৪১ পূর্বাহ্ন

প্রতিনিধি আবশ্যক :
বহুল প্রচারিত অনলাইন পত্রিকা জয় বাংলা নিউজ ডট কম ( www.joibanglanews.com)এর জন্য জরুরী ভিত্তিতে দেশের বিভিন্ন জেলা, উপজেলা/থানা এবং বিশ্ববিদ্যালয় ভিত্তিক (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি আবশ্যক। আগ্রহী প্রার্থীদের পাসপোর্ট সাইজের ১ কপি ছবি, জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি, অভিজ্ঞতা ( যদি থাকে) উল্লেখ পূর্বক জীবন বৃত্তান্ত এবং মোবাইল নাম্বার সহ ইমেইলে ( joibanglanews@gmail.com ) আবেদন করতে হবে।
যশোরে মাদ্রাসা শিক্ষার্থী অপহরণের অভিযোগে ছেলে মেয়ে মা বাবার বিরুদ্ধে চার্জশীট

যশোরে মাদ্রাসা শিক্ষার্থী অপহরণের অভিযোগে ছেলে মেয়ে মা বাবার বিরুদ্ধে চার্জশীট

বিজ্ঞাপন

 

স্টাফ রিপোর্টার: যশোর সদরের নাটুয়াপাড়া গ্রামে মাদ্রাসা শিক্ষার্থী সাদিয়া ইয়াসমিন কাকন (১৬)কে অপহরণের অভিযোগ প্রমানিত হওয়ায় একই পরিবারের চারজনের বিরুদ্ধে চার্জশীট দাখিল করেছে পুলিশ। অভিযোগ পত্র নং ৪০০ তারিখঃ ৩০/৬/২০ ইং কোতয়ালি মডেল থানার মামলা নং ১৭ তারিখঃ ০৮/০৩/২০ ইং ধারা ২০০০ সালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন সংশোধন/২০০৩এর ৭/৯(১)। চার্জশীট ভূক্ত আসামীরা হচ্ছে, যশোর সদর উপজেলার নাটুয়াপাড়া মধ্যপাড়া গ্রামের দবির হোসেনের ছেলে সুমন, মেয়ে মোছাঃ সুমি খাতুন,স্ত্রী সালিমা বেগম ও মৃত আমছের আলীর ছেলে দবির হোসেন।

মামলা বিবারনে জানাগেছে, নাটুয়া পাড়া গ্রামের বাসিন্দা অবসর প্রাপ্ত পুলিশ সদস্য আবুল কাশেমের মেয়ে সাদিয়া ইয়াসমিন কাকন নাটুয়াপাড়া মহিলা দাখিল মাদ্রাসায় চলতি বছরে দাখিল পরীক্ষায় অংশগ্রহন করেন। মাদ্রাসায় আসা যাওয়ার প্রাক্কালে সুমনের স্ত্রী সন্তান থাকা সত্বেও বিয়ের প্রলোভনসহ ফুসলাতো। বিষয়টি কাকন তার মা বাবাকে জানালে কাকনের পরিবারের পক্ষ থেকে সুমন ও তার পরিবারের সদস্যদের জানিয়ে বিষয়টি বাধা নিষেধ করে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে সুমন অপহরনের সুযোগ খুঁজতে থাকে। গত ৫ মার্চ সন্ধ্যায় কাকন বাড়ির পাশে তার চাচার বাড়িতে যাওয়ার সময় বাড়ির সামনে পৌছালে উক্ত সুমনসহ অজ্ঞাতনামা ২/৩জ একটি অজ্ঞাত রেজি নং মাইক্রোবাসে ফুসলিয়ে তুলে বারোবাজারের দিকে চলে যায়। চলে যাওয়ার সময় চাচা আবুল হাশেমের স্ত্রী কুলসুম প্রতিরোধ করার চেষ্টা চালিয়ে ব্যর্থ হয়ে চিৎকার দিলে কাকনের মাসহ পরিবারের লোকজন এগিয়ে আসে। অপহরনের পর সুমনের মা বাবার কাছে কাকনকে ফেরত চাইলে তারা তালবাহনা করে। পরে অপহৃতার মাতা মোছাঃ শাহিনুর বেগম বাদী হয়ে থানায় অভিযোগ দায়ের করলে মামলার তদন্তর ভার পড়ে এসআই মতিয়ার রহমানের পর। এসআই মতিয়ার রহমান সালিমা বেগমকে ১২ মার্চ ও সুমি খাতুন ও দবির হোসেনকে ১৭ মার্চ গ্রেফতার পূর্বক আদালতে সোপর্দ করে। অপহরনের প্রধান নায়ক সুমনকে গ্রেফতার করতে ব্যর্থ হয়। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা তদন্ত কার্যক্রম চালিয়ে অপহরণের অভিযোগ প্রমানিত হওয়ায় বাদীসহ ১০জনকে স্বাক্ষী করে আদালতে চার্জশীট দাখিল করেন।

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved  2019 Joibanglanews.com এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা নিষেধ।
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
Translate »