রবিবার, ০১ অগাস্ট ২০২১, ১০:১১ পূর্বাহ্ন

প্রতিনিধি আবশ্যক :
বহুল প্রচারিত অনলাইন পত্রিকা জয় বাংলা নিউজ ডট কম ( www.joibanglanews.com)এর জন্য জরুরী ভিত্তিতে দেশের বিভিন্ন জেলা, উপজেলা/থানা এবং বিশ্ববিদ্যালয় ভিত্তিক (খালি থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি আবশ্যক। আগ্রহী প্রার্থীদের পাসপোর্ট সাইজের ১ কপি ছবি, জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি, অভিজ্ঞতা ( যদি থাকে) উল্লেখ পূর্বক জীবন বৃত্তান্ত এবং মোবাইল নাম্বার সহ ইমেইলে ( joibanglanews@gmail.com ) আবেদন করতে হবে।
ফরিদপুরে গত ২৪ ঘণ্টায় পদ্মা নদীর পানি আরো তিন সেন্টিমিটার বৃদ্ধি

ফরিদপুরে গত ২৪ ঘণ্টায় পদ্মা নদীর পানি আরো তিন সেন্টিমিটার বৃদ্ধি

বিজ্ঞাপন

ফরিদপুর সংবাদদাতা।

ফরিদপুরে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় পদ্মা নদীর পানি আরো তিন সেন্টিমিটার বৃদ্ধি পেয়ে গোয়ালন্দ পয়েন্টে বিপদসীমার ১০৭ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। জেলার সদরসহ চরভদ্রাসন, সদরপুর উপজেলার পদ্মা তীরবতী গ্রামগুলো পানিতে তলিয়ে গেছে।

এছাড়া ভাঙ্গায় আড়িয়াল খাঁর তীরবর্তী কয়েকটি গ্রামেও বন্যার পানি প্রবেশ করছে বলে জানা গেছে। জেলার সদরপুর ও চরভদ্রাসন উপজেলার সীমান্তবর্তী নয়াডাঙ্গি গ্রামে সড়কের পাশের একটি বড় বট গাছ উপড়ে সড়কের ওপরে পড়ে থাকায় ফরিদপুর-চরভদ্রাসন-সদরপুর আঞ্চলিক সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। ওই সড়কের বিভিন্ন স্থান পানিতে তলিয়ে গেছে। সদরপুরের আকোটেরচর উপজেলার বাবুরচরে একটি ব্রিজ ধসে গেছে বন্যার পানির তোড়ে।

পদ্মা তীর সংরক্ষণ বাঁধ উপচে বন্যার পানিতে তলিয়ে গেছে চরভদ্রাসনের চর হাজিগঞ্জ বাজার। সদর উপজেলার সাদিপুরে গত রোববার বাঁধ ধসের পর সোমবার সেখানে একটি সড়কও পানির তোড়ে ধসে গেছে। সরেজমিনে দেখা গেছে, ধসে যাওয়া বাঁধের মেরামত কাজ সোমবার বিকেল পর্যন্ত শেষ হয়নি। সেখানে বালির বস্তা ফেলে পানি ঠেকানোর চেষ্টা চলছে। সোমবার সকালে ওই বাঁধের অদূরেই নতুন করে পাকা সড়ক ধসে যায় বন্যার পানির তোড়ে। জেলার সদর উপজেলার আলিয়াবাদ ইউপির সাদিপুরে পাঁকা সড়কসহ চরভদ্রাসন ও সদরপুরে বেড়িবাঁধের ওপর আশ্রয় নিয়েছেন বন্যাকবলিত অনেক পরিবার। এছাড়া দুর্গম চরাঞ্চলে চারদিকে বানের পানি বেষ্টিত অবস্থায় অনেক পরিবার তাদের বাড়িতে অবস্থান করছে। এসব পরিবারের মানুষ এই বন্যার কারণে চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছে। বিশেষ করে গবাদিপশু নিয়ে তাদেরকে বেশি দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। এছাড়া শিশুদের নিয়েও উদ্বিগ্ন সময় কাটাচ্ছেন তারা।

ফরিদপুরের কুমার নদীতেও পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। শহরের ওপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হয়ে বাখুন্ডা অভিমুখে স্রোত বাড়ছে। নদীর তীরে কাঁচা মাটি ধসে যাচ্ছে অনেক স্থানে। জেলার আলফাডাঙ্গা ও মধুখালীতে মধুমতি নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে নতুন করে ভাঙন শুরু হয়েছে নদী তীরে। ফরিদপুরের পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী সুলতান মাহমুদ জানান, সাদিপুরে ক্ষতিগ্রস্থ বাঁধ মেরামত করা হয়েছে। এছাড়া পদ্মা তীরবর্তী বাঁধের বিভিন্ন ঝুঁকিপূর্ণ স্থানও মেরামত করে বন্যার পানি ঠেকানোর চেষ্টা চলছে। জেলা প্রশাসক অতুল সরকার জানান, জেলার বিভিন্ন উপজেলার ৩০টি ইউপিতে বন্যার পানি প্রবেশ করেছে। জেলা প্রশাসন থেকে দুর্গতদের মাঝে সরকারিভাবে খাদ্য সহায়তা ও নগদ টাকা দেয়া হচ্ছে।

জয় বাংলা নিউজ/সস

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved  2019 Joibanglanews.com এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা নিষেধ।
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
Translate »