বুধবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৯:০০ অপরাহ্ন

বিজয়ের শুভেচ্ছাঃ
বাঙালির গৌরবোজ্জ্বল মুক্তিযুদ্ধের বিজয়ের মাস ডিসেম্বর। জয় বাংলা নিউজের পক্ষ থেকে সবাইকে বিজয়ের শুভেচ্ছা।
যশোরে বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হচ্ছে তাবলীগের তিনদিনের জোড় ইজতেমা

যশোরে বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হচ্ছে তাবলীগের তিনদিনের জোড় ইজতেমা

স্টাফ রিপোর্টার: আগামীকাল বৃহস্পতিবার থেকে যশোরে শুরু হচ্ছে তাবলীগ জামায়াতের তিন দিনের জোড় ইজতেমা। শহরতলীর উপশহর মাঠ ও তৎসংলগ্ন মাঠে এ জোড় ইজতেমায় উলামা মাশায়েখ ও তাবলীগের পুরাতন সাথীরা ছাড়াও বাংলাদেশ, ভারত ও পাকিস্তানের শীর্ষ মুরব্বীরা অংশ নিচ্ছেন। ইজতেমার আদলে আয়োজিত এ জোড় ইজতেমায় যশোরসহ তার আশপাশ এলাকার লাখো ধর্মপ্রাণ মুসল্লীরা অংশ নেবেন বলে আয়োজকরা জানিয়েছেন।

জোড় ইজতেমার মাঠের জিম্মাদার মাওলানা নাসির উল্লাহ জানান, ইতোমধ্যে ইজতেমার মাঠ প্রস্তুত করা হয়েছে। গত এক মাস ধরে তাবলীগের সাথীরা ছাড়াও উপশহর এলাকায় শত শত ধর্মপ্রাণ মুসল্লী স্বেচ্ছায় কাজ করছেন। তিনি বলেন, ইতোমধ্যে উপশহর কলেজ মাঠসহ আশপাশ এলাকাজুড়ে বিশাল প্যান্ডেল তৈরী করা হয়েছে। তাবলীগের এ জোড় ইজতেমায় যারা অংশ নেবেন তাদের জন্য প্যান্ডেলের আশপাশে সুপেয় পানি ও টয়লেটের সুব্যবস্থা রাখা হয়েছে। বৃহস্পতি, শুক্র ও শনিবার আয়োজিত এ জোড়ে যশোর ও তার আশপাশের বিভিন্ন জেলার উলামা ও তাবলীগের পুরাতন সাথীরা অংশ নেবেন।

মাওলানা নাসিরুল্লাহ বলেন, তিন দিনের এ জোড় ইজতেমায় বাংলাদেশ ছাড়া ভারত-পাকিস্তানের মোট ২০ জন শীর্ষ মুরব্বী অংশ নেবেন। বুধবারের রাতের মধ্যে তারা ইজতেমা মাঠে এসে পৌছাবেন। শীর্ষ এই ২০ জন মুরব্বীর মধ্যে একজন কাল বৃহস্পতিবার ফজরের নামাজের পর আম বয়ানের মাধ্যমে জোড় ইজতেমা শুরু করবেন।  তিনি বলেন, ইজতেমাকে সুস্থভাবে সম্পন্ন করতে জেলা পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে সার্বিক সহায়তার আশ্বাস দিয়েছেন। ৬০০ পোশাকধারী পুলিশসহ সাদা পোশাকের বিপুল সংখ্যক পুলিশ সদস্য নিরাপত্তায় নিয়োজিত থাকবেন বলে পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। জেলা ও পুলিশ প্রশাসনের শীর্ষ কর্মর্তারা প্রতিনিয়ত যোগাযোগ রাখছেন বলে তিনি জানান।

আয়োজকরা জানান, আজ বুধবার থেকে উলামা ও পুরাতন সাথীরা ছাড়াও সারাদেশের উল্লেখযোগ্য সংখ্যক জামাত ইজতেমা মাঠে উপস্থিত হতে থাকবে। এসব সাথীদের থাকা-খাওয়া নিরবিচ্ছিন্ন ও নিরাপদ করতে সব প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। ইজতেমায় বিদেশী মেহমানদের থাকার আলাদা জায়গা রাখা হয়েছে। জোড় ইজতেমা মাঠে শুক্রবার জুমার দিনে বড় জামাত অনুষ্ঠিত হবে। ৭ নভেম্বর শনিবার আখেরি মোনাজাতের মাধ্যমে তিনদিনের এ জোড় ইজতেমা শেষ হবে। আখেরি মোনাজাতে লক্ষাধিক ধর্মপ্রাণ নর-নারী অংশ নেবেন বলে আয়োজকরা জানান। আখেরি মোনাজাত শেষে ৬০০টি তাবলিগের বিভিন্ন চিল্লার জামাত সারাদেশে দাওয়াতী কাজে বের হবেন।

উপশহর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এহসানুর রহমান লিটু বলেন, উপশহর মাঠে জোড় ইজতেমায় আমাদের পক্ষ থেকে সার্বিক সহযোগিতা দেয়া হচ্ছে। উপশহর ইউনিয়ন বাসীর পক্ষ থেকে ১ হাজারেরও বেশি স্বেচ্ছাসেবক সার্বিকভাবে দায়িত্বপালন করবেন। তিনি বলেন, তাবলীগের এ জোড় চলাকালীন তিন দিন যাতে কোনপ্রকার দ্রব্যমূল্যের দাম বৃদ্ধি না করে সে জন্য আশপাশের বাজারের ব্যবসায়ীদের জানিয়ে দেয়া হয়েছে। কোনো ব্যবসায়ী অতিরিক্ত দাম বাড়ালে তাৎক্ষনিক ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে প্রশাসনের পক্ষ থেকে আমাদের আস্বস্থ করা হয়েছে।

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved  2019 Joibanglanews.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com