মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর ২০২০, ০৪:৪৮ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
যশোরে স্বামীর বিরুদ্ধে স্ত্রীর মামলা যশোরে ছুরিকাঘাত করে ছিনতাই, চাকুসহ একজন আটক যশোর বাঘারপাড়ায় মাদ্রাসা ছাত্রী ধর্ষন ও হত্যা মামলায় একজন আসামী করে চার্জশীট নভেম্বরে আসছে অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিন, হাসপাতালকে প্রস্তুতির নির্দেশ বাগমারায় স্কুল শিক্ষককে মারপিটের ঘটনা থানায় অভিযোগ অপরাধ করলে তাকে আইনের মুখোমুখি হতেই হবে..স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বিএনপি গণতন্ত্রের মুখোশপরা ফেরিওয়ালা: কাদের অক্সফোর্ড ভ্যাকসিনে সব বয়সীর দেহে রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থা যশোরে শ্রমিক মান্নাত হত্যার রহস্য উদঘাটন, গ্রেফতার ৪ কিশোর গ্যাং সাংগঠনিক ও উন্নয়নের দিক থেকে এগিয়ে এমপি শিবলী সাদিক
রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে কলেজছাত্রীর মাথার চুল কেটে নির্যাতন

রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে কলেজছাত্রীর মাথার চুল কেটে নির্যাতন

নওগাঁ সংবাদদাতা : নওগাঁর নিয়ামতপুরে এক কলেজছাত্রীর মাথার চুল কেটে নির্যাতন করেছেন এক যুবক। এ ঘটনায় মামলা হলে অভিযুক্ত রায়হানকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

গ্রেফতার রায়হান উপজেলার শ্রীমন্তপুর ইউপির ঝাজিরা গ্রামের মতিউর রহমানের ছেলে। এর আগে এ ঘটনায় থানায় মামলা করেন ভুক্তভোগী কলেজছাত্রীর বাবা।

জানা গেছে, রোববার বিকেলে কম্পিউটার প্রশিক্ষণ শেষে বাড়ি ফিরছিলেন ওই কলেজছাত্রী। পথে বালাহৈর জামে মসজিদের কাছ থেকে তিন বন্ধুকে সঙ্গে নিয়ে ছাত্রীকে জোর করে নিজের ভাড়া বাসায় নিয়ে যান রায়হান। এরপর রায়হান ও তার স্ত্রী রূপা কলেজছাত্রীর মাথার চুল কেটে নির্যাতন করেন। প্রায় দেড় ফুট লম্বা মাথার চুল কেটে ফেলা হয় কলেজছাত্রীর। এরপর অশ্লীল ছবি তুলে কাউকে কিছু না বলার জন্য হুমকি দিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়। কলেজছাত্রী বাড়ি যাওয়ার পর অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়।

ভুক্তভোগী কলেজছাত্রী জানান, এক মাস থেকে রায়হান বিভিন্নভাবে তাকে কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিলেন। রাজি না হওয়ায় রোববার বিকেলে কম্পিউটার প্রশিক্ষণ শেষে এক শিক্ষককে প্রাইভেটের টাকা দিতে গেলে বালাহৈর জামে মসজিদের কাছ থেকে রায়হান ও তার তিন বন্ধু তাকে বাড়িতে নিয়ে যান। সেখানে শারীরিক নির্যাতনের পর মাথার চুল কেটে দেন তারা। এছাড়া দুই ঘণ্টা আটকে রাখা হয়েছিল।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত রায়হান বলেন, কয়েকদিন আগে ওই কলেজছাত্রী আমার বাড়িতে এসে আমার স্ত্রীকে এক ছেলের সঙ্গে সময় কাটানোর প্রস্তাব দেন। আমি বাড়ি আসার পর স্ত্রী বিষয়টি জানান। এরপর থেকে ওই মেয়েকে আমি খুঁজছিলাম। রোববার বিকেলে বালাহৈর মসজিদের কাছে দেখার পর তাকে স্ত্রীর কাছে নিয়ে যাই। তাকে চিনতে পারায় ওই ছেলেটির সম্পর্কে জানতে চাই। ছেলেটির পরিচয় না দেয়ায় আমরা তার অভিভাবককে আসতে বলি। অভিভাবক না আসায় আমার স্ত্রী তাকে চড়-থাপ্পড় দিয়ে মাথার চুল কেটে দেন।

নিয়ামতপুর থানার ওসি হুমায়ুন কবীর বলেন, এ ঘটনায় রায়হানসহ অজ্ঞাত দুইজনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেন ভুক্তভোগী কলেজছাত্রীর বাবা। মামলার পর রায়হানকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

জয় বাংলা নিউজ/ডেবা

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved  2019 Joibanglanews.com এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা নিষেধ।
Design & Developed BY ThemesBazar.Com